যে কোন মেয়ের থেকে পিক নেওয়ার অস্থির কৌশল

যে কোন মেয়ের থেকে পিক নেওয়ার অস্থির কৌশল

হাই গাইস, আমি সফিক, আপনাদের মাঝে আবারও হাজির হয়েছি নতুন একটি আলোচনা নিয়ে। বন্ধুরা মেয়েদের কাছ থেকে পিক চাওয়া আর গভীর রাতে ডাকাতের হাকে পড়া একই কথা। যদি সম্পর্ক একটু ভালো হয় তাহলে হয়তো ছেড়ে দেবে। আর নয় তো কোনো কথা না বলে ডাইরেক্ট আপনাকে ব্লক করে দিবে। আপনার ইচ্ছা কি, কি জন্য চেয়েছেন, আপনার মনের ফিলিংস কি সে কখনোই বুঝবে না। তো পিক না দেওয়ার পেছনে যদিও যথেষ্ট কারণ আছে। অনেকেই পিক নিয়ে মিস ইউজ করে ব্লাকমেইল করে, অনেক ব্যাপার-স্যাপার থাকে। এজন্য মেয়েরা পিক দিতে সংকোচ বোধ করে। তো যাই হোক সেটা অন্য কথা তো আপনি যদি কোন মেয়ের কাছ থেকে পিক চাওয়ার কথা ভাবেন। তাহলে সরাসরি পিক না চেয়ে আজকে আমি আপনাদের মজার কয়েকটি ডায়লগ শিখিয়ে দিবো কয়েকটি অস্থির বাহানা শিখিয়ে দিবো সেগুলোর মাধ্যমে যদি মেয়ের কাছ থেকে পিক চাইতে পারেন। তাহলে মেয়ে আপনাকে পিক দিক বা না দিক অন্তত ব্লক করবে না এবং আপনার কথায় সে অনেক মজা পাবে। তাহলে চলুন পিক চাওয়ার বাহানা বা ডায়লগ গুলো দেখে নেওয়া যাক। 

ডায়লগ নাম্বার -১: আপনার একটা পিকের দরকার ছিলো। আসলে শেখ হাসিনা ম্যাম আমাকে ফোন দিয়ে দেখা করার জন্য বলছে। তো যেকোনো একজনকে সঙ্গে নিয়ে যাওয়া যাবে তাই ভাবলাম আপনাকে নিয়ে যাই। তো আমার সঙ্গে কে আসবে তার একটা ফটো পাঠাতে হবে এজন্য আপনার একটা পিক দরকার। হা হা হা হা বন্ধুরা আপনার এমন কথা শুনে মেয়ে অবশ্যই হাসবে অনেক মজা পাবে। আর এটাই আপনার সাক্সেস কারণ আগে হাসবে পরে ফাঁসবে। মেয়ের কাছ থেকে পিক চাওয়ার-

২- নাম্বার ডায়লগ: শুনুন না! আমার একটা হেল্প করবেন? মেয়ে তো অবশ্যই বলবে কি? তারপর বলবেন, আপনার একটা পিক ধার দিবেন একদিনের জন্য? আসলে কাল ঘুরতে যাব, তো একা কিভাবে যাই। তাই আপনার একটা পিক ধার চাইছি, যাতে করে কেই আমার সাথে আছে এটা ফিল হয়। সমস্যা নাই আবার ফেরত দিয়ে দিব। হা হা হা হা আবে! পিককে ধার চায় বে? বন্ধুরা এটা অস্থির ফানি একটা ডায়লগ, যদিও আরেকটু ছিল কিন্তু বললাম না। আপনি বলে দেখবেন মেয়ে অব্যশই মজা পাবে অনেক খুশি হবে। এমনও হতে পারে যে মেয়ে তার পিক দিয়ে দিবে। মেয়ের পিক চাওয়ার –

৩- নাম্বার ডায়লগ: আচ্ছা শোনো! তোমার একটা ফটো দরকার দিবা? মেয়ে তো অবশ্যই বলবে কেন কি দরকার? তখন আপনি বলবেন, আমার মনের দরজায় তোমার ফেস লক দিবো, যাতে তুমি ছাড়া আমার মনের দরজা কেউ কখনো খুলতে না পারে, এজন্য তোমার একটা পিক দরকার। বন্ধুরা এটা খুব রোমান্টিক একটা ডায়লগ। তো যদি মেয়ের সাথে আপনি এই পরিমাণ ফ্রি হন বা ফ্লার্টিং করেন তাহলেই কিন্তু ডায়লগটি ইউজ করবেন। 

৪- নাম্বার ডায়লগ: বন্ধুরা এটা আসলে কোন ডায়লগ না এটা একটা কৌশল যে আপনি মেয়েকে বলবেন, যে আমি না কামরূক কামাখ্যা থেকে একটা বিদ্যা শিখে এসেছি। যে আমি যেটা আন্দাজ করি বাস্তবে সেটায় হয় সত্যি। বিশ্বাস না হলে আপনারা দুই তিনটা ফ্রেন্ড মিলে যদি কোন পিক তুলে থাকেন। যার মধ্যে আপনিও আছেন এমন একটা পিক পাঠান। দেখবেন আমি বলে দিবো আপনি কোনটা। মেয়ের কাছ থেকে শুধু পিক নিন পরে হাজারও বাহানা পাবেন তাকে চেনার। মেয়ের কাছে পিক চাওয়ার –

৫- নাম্বার ডায়লগ: জরুরী মুহূর্তে আপনার একটা ফটোর প্রয়োজন পাঠান তো। মেয়ে আপনাকে অবশ্যই জিজ্ঞেস করবে কেন? বা কি প্রয়োজন? তারপর আপনি বলবেন এতোদিন ধরে স্বপ্নে যে মেয়েকে দেখতেছি সেটা কি আপনি? নাকি কল রং নাম্বারে ঢুকছে সেটা পরীক্ষা করতে হবে আজকে রাতে। বন্ধুরা ডায়লগটি ফানি এবং রোমান্টিক। যদি মেয়ে একটুও বোঝে তাহলে অবশ্যই আপনার কাজ এগোবে। তো পিক চাওয়ার পরে যদি কোন মেয়ে জিজ্ঞেস করে কি জন্য পিক লাগবে বা পিক দিয়ে কি করবেন তাহলে এই প্রশ্নগুলোর অস্থির মজার রোমান্টিক উত্তর নিয়ে একটা আলোচনা বানানো হয়েছে যদি না দেখে থাকেন তাহলে অবশ্যই পড়বেন। আজ এ পর্যন্তই সবাই ভালো থাকবেন সুস্থ থাকবেন গুড বাই।  

Related posts

Leave a Comment